কবি আরিফুল ইসলাম ও কবি জেসমিন আরা’র ২১ নিয়ে দুটি কবিতা

0
371

মাতৃভাষা বাংলা

আরিফুল ইসলাম

রফিক, শফিক,জব্বার,

বরকত জীবন দিল সালাম,

তাদের দানে বাংলা ভাষা

আমরা সবে পেলাম।

এই ভাষা যে মায়ের ভাষা

যার তুলনা নাই,

তাই তো আমরা যেথায় থাকি

এই ভাষার গুণ গাই।

তবে কিছু শিক্ষিত লোক

বাংলাকে করে হেলা,

ফুটুস-ফাটুস ইংরেজি বলে

কাটায় সারা বেলা।

বাংলা না-কি তাদের কাছে

তুচ্ছ একটি ভাষা,

তাদের বলি ভুলে গেছো

কোথা থেকে আসা?

জন্ম নিলে মায়ের কোলে

সেই শেখালো এটি,

এই ভাষা যে মাতৃভাষা

সোনার চেয়ে খাঁটি।

যেই ভাষাতে কথা বলো

মিটবে না যে আশ,

হৃদয় মাঝে সুপ্ত তোমার

বাংলার বসবাস।

এই ভাষাতেই পাবে তুমি

তৃপ্তির সেই স্বাদ,

এই ভাষাতেই জড়িয়ে আছে

মায়ের আশীর্বাদ।

 

একুশ আমার গর্ব

জেসমিন আরা

একুশ আমার গর্ব,

একুশ আমার আহংকার

একুশ আমার দুরন্ত ছেলের

উৎকন্ঠ চিৎকার

একুশ আমার ভাষা

শহিদের জাগ্রত প্রতিবাদ

একুশ আমার গুলিবিদ্ধ

শহিদের আর্তনাদ।

একুশ আমার ফাগুন

কোকিলের কুহু কুহু ডাক

একুশ আমার দামাল শহিদের

বরকতের আঁকাশ কাপানো হাক

একুশ আমার রক্তে ভেজা

রাজপথ অলিগলি,

একুশ আমার মায়ের কন্ঠে

গান, কবিতার কলি।

একুশ আমার রক্তে মাখা

বোনের ভেজা শাড়ি।

একুশ আমার ভাই হারানো

বোনের আহাজারি।

একুশ আমার রুগ্ন পিতার

কন্ঠের নিঃশ্বাস,

একুশ আমার শুকনো রক্ত

ভোরের দূর্বা ঘাস।

একুশ আমার বিধাবা বধূর

মেহেদী রাঙ্গানো হাত।

একুশ আমার পিতা হারার

ছোট সোনার না ঘুমানো কালরাত।

একুশ আমার পাগলি মায়ের

লোহার পায়ে শিকল,

একুশ আমার মেঘে ঢাকা

এক পড়ন্ত বিকেল।

একুশ আমার মধূ মাখা

ছোট শিশুর বুলি।

একুশ আমার শান্ত মায়ের

অ,আ,ক, খ বর্ণগুলি।

একুশ আমার আত্বত্যাগের

পাষন বুকের হিয়া,

তাইতো আমরা গর্বকরি
একুশেরে নিয়া ……

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here